হোমপেজ ফিচারস সৌদি আরবে মিলল ১২০,০০০ বছরের পুরনো পায়ের ছাপ

সৌদি আরবে মিলল ১২০,০০০ বছরের পুরনো পায়ের ছাপ

সন্ধান পাওয়া সেই সোয়া লাখ বছরের পুরনো হাতি (বায়ে) ও উটের (ডানে) পায়ের ছাপ (Image: Stewart et al., 2020)

সৌদি আরবে খোঁজ মিলল প্রাগৈতিহাসিক যুগের কয়েকশ পায়ের ছাপের। এর সিংহভাগই বিভিন্ন প্রাণীর হলেও হাতে গোনা কয়েকটি ছাপ মানুষের হওয়ায় তা চাঞ্চল্য সৃষ্টি করেছে গবেষকদের মধ্যে। কারণ আরব অঞ্চলে মানুষের আগমন যত পুরনো বলে এতদিন মনে করা হত, এই পায়ের ছাপগুলো তার চেয়েও অনেক প্রাচীন। অর্থাৎ এতদিনকার প্রচলিত ধারণারও বহু আগেই মানুষ পা রেখেছিল মরুময় আরব বিশ্বে।

সৌদি আরবের নেফাদ মরুভূমিতে প্রাচীন অ্যালাথার হ্রদ নিয়ে চলা এক অভিযানের সময় অনেকটা অপ্রত্যাশিতভাবেই খোঁজ মেলে এই পায়ের ছাপগুলোর। ভূমিক্ষয়ের জেরে বালি সরে গিয়ে দৃশ্যমান হয় ছোট-বড় মিলিয়ে মোট ৩৭৬টি পায়ের ছাপ।

ছাপগুলো পরীক্ষা করে গবেষকরা জানিয়েছেন, এগুলো প্রায় ১২০,০০০ বছরের পুরনো। পায়ের ছাপগুলোর বেশিরভাগই ঘোড়া, ষাঁড়, উট ও হাতির। এটিও গবেষকদের বিস্মিত করেছে। কারণ এর আগের ধারণা অনুযায়ী, একসময়কার গাছপালায় ভরা আরব উপত্যকা থেকে হাতি ও এর সমগোত্রীয় প্রাণী বিলুপ্ত হয়ে গিয়েছিল আজ থেকে প্রায় ৪০০,০০০ বছর পূর্বে। কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে, ১২০,০০০ বছর আগেও ঐ অঞ্চলে হাতির বিচরণ ছিল।

তবে এই পৌনে চারশ পায়ের ছাপের মধ্যে মাত্র সাতটিকে ঘিরেই সবচেয়ে বেশি বিস্মিত হয়েছেন গবেষকেরা, কারণ সেগুলো মানুষের। তাদের ধারণা, ছাপগুলো ইন্টারগ্লেশিয়াল যুগের শেষ দিককার। ঐ সময়কালে আরব অঞ্চলের আর্দ্রতা ধীরে ধীরে সহনীয় হতে থাকে। এতে সেখানকার আবহাওয়া তুলনামূলক শীতল হতে থাকায় বহু মানুষ ও প্রাণী কখনও জলাশয়ের খোঁজে, কখনও বাসযোগ্য আবহাওয়ার টানে ঐ অঞ্চলে এসে ছড়িয়ে পড়তে শুরু করে।

মানবজাতির উৎপত্তি ও বিশ্বজুড়ে তাদের বিস্তার নিয়ে কাজ করা গবেষকদের মতে, মানুষের প্রথম আবির্ভাব ঘটেছিল আফ্রিকা অঞ্চলে। সেখান থেকে তারা সময়ের সাথে সাথে ইউরোপ, এশিয়া, আরব প্রভৃতি অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়ে। ইসরায়েলে সন্ধান পাওয়া মানুষের একটি চোয়াল পরীক্ষা করে দেখা গেছে, সেটি ১৮০,০০০ বছর পূর্বের। অর্থাৎ আফ্রিকা থেকে লেভান্ট অঞ্চলে মানুষের পদার্পণ ঘটেছিল অন্তত ১৮০,০০০ বছর আগে। লেভান্ট অঞ্চলটি আজকের ইসরায়েল, প্যালেস্টাইন, জর্ডান, সিরিয়া ও লেবানন নিয়ে গঠিত, যা ভৌগোলিকভাবে আফ্রিকা ও আরব ভূখন্ডের মাঝামাঝি অংশে অবস্থিত।

আবার গ্রীসে খুঁজে পাওয়া মানুষের মাথার একটি খুলির বয়স ২১০,০০০ বছর হওয়ায় ধারণা করা হয় আফ্রিকা থেকে ইউরোপে মানুষ পৌঁছেছিল অন্তত ২১০,০০০ বছর পূর্বে। সেই তুলনায় আফ্রিকা থেকে তুলনামূলক কাছের ভূখন্ড আরবের উদ্দেশ্যে মানুষ যাত্রা করেছিল অনেকটাই দেরিতে। তবে এখন সন্ধান পাওয়া ৩৭৬ টি পদচিহ্ন দেখে বোঝা যাচ্ছে, আদতে প্রচলিত ধারণার আরও অনেক আগেই মানুষের সেই যাত্রা শুরু হয়েছিল আরব অভিমুখে।