হোমপেজ প্রযুক্তি করোনা ঠেকাতে জাপান বানাল কনুই দিয়ে খোলা দরজা

করোনা ঠেকাতে জাপান বানাল কনুই দিয়ে খোলা দরজা

করোনা সংক্রমণ রোধে কনুই দিয়ে খুলতে পারা বিশেষ ধরনের এই দরজাই উদ্ভাবন করেছে জাপানের বিমান সংস্থা (Image: All Nippon Airways Co Ltd and Jamco Corporation)

বিশ্বজুড়ে চলা করোনা পরিস্থিতির মধ্যে নিজেদের নিরাপদ রাখতে মানুষ এখন একজন আরেকজনের থেকে যথাসম্ভব দূরত্ব বজায় রেখে চলছে। এবং শুধু অন্যের সংস্পর্শই নয়, মানুষকে সতর্ক থাকতে হচ্ছে এমন বস্তু থেকেও, যেগুলো ব্যবহার করে অনেক লোক।

দরজার হাতল, বাসের হ্যান্ডেল কিংবা লিফটের বাটন, এমন জিনিসগুলোতে অনেক মানুষের হাতের ছোঁয়া থাকে বলে সেগুলোকেও করোনা ভাইরাস সংক্রমণের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে।

কিন্তু নিত্যব্যবহার্য এসব জিনিসে হাত না দিয়েও তো উপায় নেই। কারণ প্রায় সবদেশেই উঠে গেছে লকডাউন, চালু হয়ে গেছে অফিস-আদালত, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান। মানুষ কাজে যোগ দিতে বাইরে বের হচ্ছেন। দীর্ঘ ঘরবন্দী জীবন শেষে অনেকে বেরিয়ে পড়ছেন ঘুরতেও।

আর বাইরে বেরিয়ে মানুষকে নিজের অজান্তেই হাত দিতে হচ্ছে দরজার হাতল কিংবা লিফটের বোতামে, যেখানেই হয়ত লুকিয়ে আছে কোভিড-১৯ এর জীবাণু।

আচ্ছা এমন যদি হত, হাতলে হাত না দিয়েও খুলে ফেলা যেত দরজা!

অনেকটা এমন ভাবনা থেকেই জাপানের ‘অল নিপ্পন এয়ারওয়েজ’ (এএনএ) তাদের বিমান সংস্থার বাথরুমের জন্য উদ্ভাবন করেছে দরজার এমন এক হাতল, যা হাত দিয়ে নয়, খুলতে হয় কনুই দিয়ে।

বিশেষ এই হাতল সংবলিত দরজা আপাতত পরীক্ষামূলকভাবে ব্যবহৃত হচ্ছে শুধুমাত্র জাপানের হানেদা বিমানবন্দরে। আগস্টের শেষ নাগাদ এটি সম্পর্কে ব্যবহারকারীদের কাছ থেকে মতামত নেওয়া হবে। আর তার ভিত্তিতেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে এটিকে পরবর্তীতে স্থায়ীভাবে ব্যবহার করা হবে কিনা সেব্যাপারে।

নতুন উদ্ভাবিত দরজার হাতলটিতে দু’টো অংশ রয়েছে। একটির সাহায্যে বাথরুমে প্রবেশের পর দরজাটি বন্ধ করতে হয়। আর আরেকটি দিয়ে বাথরুমের বাইরে বেরিয়ে আসার জন্য দরজাটিকে ঠেলতে হয়। উভয় অংশই কনুই দিয়ে পরিচালনা করা যায়, ফলে হাত দিয়ে ধরার প্রয়োজনই পড়েনা।

‘অল নিপ্পন এয়ারওয়েজ’ (এএনএ) এর আগে তাদের কয়েকটি বিমানের বাথরুমে সেন্সর-চালিত জলের কল সংযুক্ত করেছিল, যেগুলোও হাতের ছোঁয়া ছাড়াই ব্যবহার করা যায়।

এরই ধারাবাহিকতায় পরবর্তীতে ‘এএনএ’ সিদ্ধান্ত নেয় বাথরুমের দরজাগুলোকেও হাতের স্পর্শ ছাড়া চালনা করার উপযোগী করে তৈরি করার। শুরুতে তারা দরজাগুলোকে পা দিয়ে খুলতে ও বন্ধ করতে পারার মত করে বানানোর উদ্যোগ নেন। কিন্তু উড্ডয়নরত অবস্থায় নড়তে থাকা বিমানে এক পা উঠিয়ে দরজা খুলতে গিয়ে যাত্রীরা শারীরিক ভারসাম্য হারিয়ে ফেলতে পারেন, এমন আশঙ্কায় সে পরিকল্পনা থেকে সারে আসে এয়ারলাইন্সটি।

এর পরিবর্তে কনুই দিয়ে দরজা খোলার হাতল তৈরি করে ফেলল তারা। অবশ্য আনুষ্ঠানিক ও স্থায়ীভাবে কার্যকর হলে নতুন উদ্ভাবিত এই কাঠামোটিকে আন্তর্জাতিক বিমান চলাচল ও সুরক্ষা সংক্রান্ত বিধানের আওতায় আলাদা করে অনুমোদন নিতে হবে কিনা তা এখনও স্পষ্ট নয়।