Home বিজ্ঞান সাবধান! কোমল পানীয় ধ্বংস করছে আপনার স্মৃতিশক্তিও

সাবধান! কোমল পানীয় ধ্বংস করছে আপনার স্মৃতিশক্তিও

আমরা এতদিন শুধু জেনে এসেছি, কোমল পানীয় শরীরে শর্করা বৃদ্ধি, স্থুলতাসহ অনেক সমস্যার কারণ। নতুন এক গবেষণায় এবার জানা যাচ্ছে, এটি ক্ষতি করে আপনার মস্তিষ্কেরও। অনেকেই নিরাপদ মনে করে সাধারণ কোমল পানীয়র পরিবর্তে ডায়েট সোডা পান করেন, কিন্তু এই গবেষণায় উঠে এসেছে, প্রতিদিন ডায়েট সোডা পানও স্ট্রোক ও স্মৃতিশক্তি নষ্টের মত ক্ষতির দিকে নিয়ে যায় আপনাকে।

সম্প্রতি প্রকাশিত পৃথক দুটি গবেষণাপত্রই বলছে, চিনিযুক্ত এবং চিনিবিহীন, উভয় প্রকার কোমল পানীয়ই আপনার মস্তিষ্কের বয়স বাড়িয়ে দেয়।

‘আলঝেইমার্স অ্যান্ড ডিমেনশিয়া’ জার্নালে প্রকাশিত প্রতিবেদনে বলা হয়, যারা নিয়মিতভাবে কোমল পানীয় পান করেন তাদের মস্তিষ্কের ঘনত্ব একটু একটু করে কমতে থাকে। হিপ্পোক্যাম্পাস নামে মস্তিষ্কের যে অংশ তথ্য ধারণ ও মনে রাখার কাজ করে, সেটির আয়তন কমে আসে। ফলশ্রুতিতে ধীরে ধীরে কমে যায় ব্যক্তির স্মৃতিশক্তি।

এই গবেষণাটির ওপর ভিত্তি করে আরও একটি গবেষণা চালান বিজ্ঞানীরা, কোমল পানীয়ের পরিবর্তে ডায়েট সোডা গ্রহণেও একই ঘটনা ঘটে কিনা জানার জন্য। এক্ষেত্রেও প্রভাব প্রায় একই রকম থাকে বলে দেখেছেন তারা। গবেষকরা বলেছেন, যারা কোমল পানীয় বা ডায়েট সোডা নিয়মিত পান করেন, তাদের ব্রেইন স্ট্রোকের ঝুঁকি যারা পান করেননা তাদের চেয়ে অন্তত তিনগুণ বেশি।

বিজ্ঞানীরা আরও জানিয়েছেন, কোমল পানীয়ের মত ডায়েট সোডাও তৈরি হয় কৃত্রিম শর্করা দিয়ে। ফলে অতিরিক্ত গ্রহণে এগুলো পেটের ভেতরে বিপদজনক মাত্রায় ব্যাকটেরিয়া সৃষ্টি করে, যা অন্ত্র, পাকস্থলীসহ বিভিন্ন অঙ্গের ক্ষতির কারণ হতে পারে।

হৃদরোগ, স্থুলতা, টাইপ-২ ডায়বেটিসের মত রোগ সৃষ্টিতে কোমল পানীয়ের ভুমিকা এতদিন বিজ্ঞানীদের জানা ছিল। কিন্তু মস্তিষ্কের ওপর এর প্রভাব নিয়ে খুব একটা তথ্য তাদের হাতে ছিলনা। নতুন গবেষণাগুলোর উদ্দেশ্য ছিল এই ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করা।

প্রথম গবেষণাটির জন্য, তৃতীয় প্রজন্ম এবং তাদের বংশধরসহ ৪,০০০ লোকের ওপর তথ্য সংগ্রহ করা হয়। কৃত্রিম পানীয়গুলোর কুপ্রভাব সম্পর্কে জানতে বিজ্ঞানীরা জোর দেন তাদের ওপর, যারা দৈনিক দু’টির বেশি কোমল পানীয় বা তিনটির বেশি ডায়েট সোডা পান করেন।

আশংকামতই দেখা যায়, যারা এইসব পানীয় ভারী মাত্রায় এবং নিয়মিতভাবে গ্রহণ করেন তাদের মস্তিষ্কের ক্ষয় হচ্ছে, হিপ্পোক্যাম্পাস ছোট হয়ে আসছে, কোন কিছু মনে রাখার ক্ষমতা কমে যাচ্ছে। আর এই সবগুলোই আলঝেইমার্সের প্রাথমিক লক্ষণ, যে রোগে মানুষ তার অতীত জীবনের সব কথা ভুলে যায়, এমনকি অতিপরিচিত মানুষদেরকেও চিনতে পারেনা।

অন্যদিকে যারা কোমল পানীয় বা ডায়েট সোডা পান করেন দিনে মাত্র একটি করে তাদের বেলাতেও কম মাত্রায় হলেও মস্তিষ্কের ক্ষয় এবং হিপ্পোক্যাম্পাসের আকার ছোট হওয়ার ঘটনা ঘটতে দেখা গেছে।